গরমে এলাকাবাসীর কলিজা ঠান্ডা করায় শান্তিতে নোবেল পাচ্ছে “ঢাকা ওয়াসার রহমত, কল খুললেই শরবত” প্রজেক্ট

সম্প্রতি এলাকাবাসীর কলিজা ঠান্ডা করার জন্য তীব্র এই গরমে পানির লাইনে বেলের শরবতের সাপ্লাই দেওয়া শুরু করেছে ঢাকা ওয়াসা। আর “ঢাকা ওয়াসার রহমত, কল খুললেই শরবত” নামক এই প্রজেক্টের জন্য আগামীবার শান্তিতে নোবেল পেতে যাচ্ছে ঢাকা ওয়াসার এই প্রজেক্ট। জানা যায়, প্রাথমিক পর্যায়ে রাজধানীর দনিয়া অঞ্চলে ফ্রি বেলের শরবত সরবরাহের মাধ্যমে প্রজেক্টটি চালু করেছে ঢাকা ওয়াসা। আর তাতেই রাতারাতি সারাবিশ্বের সর্বস্তরের মানুষের নজর কেড়েছে প্রতিষ্ঠানটি। এ ব্যাপারে বিস্তারিত জানতে আমাদের প্রতিনিধি ঘটনাস্থল দনিয়া গেলে, রাস্তার কল থেকে বেলের শরবত ভরতে থাকা অবস্থায় একজন আমাদের বলেন- “ভাই কিয়েক্টাবস্তা দেখসেন, সকাল থেকেই দেখি কেমুন হইলদা হইলদা পানি আইতাসে, প্রথমে ভাবসি কি না কি, পরে সাহস কইরা একটু মুখে দিয়া দেখি এ বাবা এতো বেলের শরবত। এখন পানি না আইসা সারাদিন এগুলা আসতেসে। খাওয়া দাওয়া গোসল সব এই বেলের শরবত দিয়াই করতে হইতাসে, প্রথম প্রথম একটু অস্বস্তি লাগলেও এখন ব্যাপারটা ভালোই লাগতেসে, খাবেন নাকি একটু বেলের শরবত, খান ঢেলে দেই, দিবো?” তাহেরি স্টাইলে এমন সাধাসাধি করতে থাকায় আমাদের প্রতিবেদক দৌড়ে সেখান থেকে পালিয়ে আসেন।

তবে ওয়াসার এই বেলের শরবত খাওয়ার জন্য ঢাকায় আসার জন্য আগ্রহ প্রকাশ করেছেন অনেকেই। থর বলে খ্যাত ক্রিস হেমসওর্থ এক টুইটে বলেছেন, “আমি বিশ্বাস করি না, পোমান দাও” অথচ এদিকে বেশ দুঃখ ভারাক্রান্ত আঙ্গুলে টুইট করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট দোলন ত্রাস। তিনি বলেন- “কয়দিন আগেই ইন্ডিয়া এসে ঘুরে গেলাম তখন যদি ওয়াসার এই প্রজেক্ট থাকতো, তাহলে আমি ঢাকায় এসেও বেড়ায় যাইতাম। এখন এসব কোত্থেকে আসলো? এগুলা সব ষড়যন্ত্র। আসলে আমরা তো আর ভাই না, তাই চাইলেও পাই না”

বিঃদ্রঃ পীথাগোরাস একদা বলেছিলেন – “ইন্টারনেটে প্রচলিত ৯৯.৯৯% জিনিসই ভুয়া” সুতরাং যেখানে যা দেখেন তা যদি বিশ্বাস করার অভ্যাস/বদভ্যাস আপনার থেকেই থাকে তাহলে তার দায়ভার সম্পূর্ণ আপনার।

৬টি ভাবনা যা আপনার কাজে আসবে যখন দেখছেন চারপাশে সবাই বিয়ে করছে

Quiz: জেনে নিন গোপনে আপনি কোন অদ্ভুত খাবারটি পছন্দ করেন, কিন্তু স্বীকার করেন না