ভাল্লাগসেভাল্লাগসে মাইরালামাইরালা কস্কি মমিনকস্কি মমিন সেন্টি খাইলামসেন্টি খাইলাম

বাণিজ্যমেলায় কেনাকাটার চ্যালেঞ্জে পাশের বাসার ভাবির কাছে হেরে ডিপ্রেশনে আরেক ভাবি

বাণিজ্যমেলায় কেনাকাটা করার চ্যালেঞ্জে পাশের বাসার ভাবির কাছে হেরে গেছেন বাসাবোর ফারিহা নামের এক ভাবি। আর এই চ্যালেঞ্জে হেরে যাওয়ার পর থেকেই তিনি ব্যাপক ডিপ্রেশড। জানা যায়, বাণিজ্যমেলা শুরু হওয়ার পর থেকেই নাকি পাশের বাসার ঐশী ভাবিকে তিনি সুযোগ পেলেই কি কিনেছেন তা জিজ্ঞেস করতেন এবং তাকে বিভিন্নভাবে হেয় করার চেষ্টা করতেন। আর এতেই ত্যক্তবিরক্ত হয়ে ঐশী ভাবি নিজ খরচে একদিন তাকে বাণিজ্যমেলায় নিয়ে গিয়ে, কে কত কমদামে কত বেশি জিনিস কিনতে পারে, এমন একটি ওপেন চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দেয়। তবে তার এই চ্যালেঞ্জের কথা শুনে তাদের দুইজনের অন্য দুই বান্ধবী Taskকী টিমের সদস্য নুজহাত এবং শিশির তাদের সাথে যোগ দিয়ে পুরো বিষয়টি আরও কঠিন করে তোলেন। এখানে দেখুন সেই প্রমান (ভিডিও)।

এদিকে চ্যালেঞ্জ নিয়ে ফারিহা ভাবির সাথে কথা বলতে গেলে তিনি বলেন- “আমি তো রোজ রোজ কি কিনি সেগুলো বলে বলে, ঐশী ভাবিকে একটু হিংসে করানোর চেষ্টা করেছিলাম, কিন্তু উনি এমন অদ্ভুত চ্যালেঞ্জ করে বসবে তা আমি একদমই ভাবতে পারিনি। এখন তো হেরে গিয়ে এলাকার ভাবি সমাজে আমার মুখ দেখানো দায়, কি করি হায় হায়” বলেই ফারিহা ভাবি কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন।

তবে অন্যদিকে ঐশী ভাবি চ্যালেঞ্জে জিতে বেশ চিল মুডে আছেন বলে জানা যায়। তিনি বলেন- “আরে ভাই, এইসব আনন্দ দেশের মানুষ বুঝবে না, তাই আমি ভাবছি, আমার বান্ধবীকে নিয়ে দেশের বাইরে চলে যাবো এবং সেখানে বসে শুধুমাত্র শপিং করার জন্য আমাদেরকে হায়ার করতে পারবে এমন একটি প্রতিষ্ঠান চালু করার প্ল্যান করে, কিছু বিদেশী ইনভেস্টমেন্ট নিয়ে তারপর দেশে ফেরত আসবো।”

তবে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত উনি উনার বান্ধবী শিশিরের সাথে বসে ট্যাশ করে জুস খাচ্ছেন বলে জানা যায়।

বিঃদ্রঃ পীথাগোরাস একদা বলেছিলেন – “ইন্টারনেটে প্রচলিত ৯৯.৯৯% জিনিসই ভুয়া” সুতরাং যেখানে যা দেখেন তা যদি বিশ্বাস করার অভ্যাস/বদভ্যাস আপনার থেকেই থাকে তাহলে তার দায়ভার সম্পূর্ণ আপনার।

Written by Bishal Dhar

নাম ধাম তো দেখসেন আর কি দেখেন , অতিরিক্ত কৌতুহল ভালো না যান লেখা পড়েন

যে ১২ ধরণের সুপার পাওয়ারফুল বন্ধু আমাদের প্রত্যেকের সার্কেলে রয়েছে

শীতকালীন সবজির ৬টি সুস্বাদু ও স্বাস্থ্যকর রেসিপি