ভাল্লাগসেভাল্লাগসে মাইরালামাইরালা কস্কি মমিনকস্কি মমিন

“নারী” নয় দিবসটা হোক মানুষের

প্রত্যেক বছরই বেশ আয়োজন করে নারী দিবস উদযাপন করা হয়। তবে আমার মতে এভাবে নারী/পুরুষ দিবস আলাদাভাবে পালন না করে যদি গোটা মানুষজাতির জন্য একটি দিবস পালন করা হতো, সেটি আমাদের সবার জন্য ভালো হতো। কারণ আমি মনে করি, ঘটা করে শুধু নারীদের জন্য একদিন পালন করে এটাই বুঝানো হয় যে, নারীরা আলাদা, তাই তাদের জন্য আলাদা একটি দিবস দরকার। অথচ নারী -পুরুষকে আলাদা চোখে না দেখে সবাইকে মানুষ হিসেবে বিচার করলেই তবে সমতা প্রতিষ্ঠা করা সম্ভব।

কারণ নারীদের জন্য আলাদা একটি দিবস পালন করা মানে আমাদের ‘নারী’ হিসেবেই দেখা হচ্ছে, ‘মানুষ’ হিসেবে নয়। সেই সাথে বছরে একদিন নারীদের জন্য একটি দিবস পালন করে কি হবে যদি বাকি সব দিন নারীদের সেই একই বৈষম্যের স্বীকার হতে হয়? তাহলে শুধু লোক দেখানো এই একটি দিবস পালনের মহিমা কোথায়?

আবার আমাদের মাঝে অনেকেই আছেন, যারা নারী দিবস উপলক্ষে একদিন বিশেষভাবে নারীদের সম্মান দেখালেও তাদের মধ্যে অনেকেই কিন্তু বাকি দিনগুলো নারীদের অসম্মান করতে দ্বিধাবোধ করে না।

তাই আমি বলবো, এর চেয়ে অনেক বেশি ভালো হতো যদি নারী-পুরুষ আলাদা করে দিবস উদযাপন না করে সবাই মিলে একটি দিবস পালন করা হতো। তাহলে নারী-পুরুষের বৈষম্য ভুলে সমান অধিকারের জায়গাটা শক্ত করা আরও অনেক সহজ হতো।

এই ফাল্গুনে ঘুরে আসুন সুনামগঞ্জের শিমুল বাগানে

১২টি পয়েন্টে ছোটবেলার পরীক্ষা Vs বড়বেলার পরীক্ষা